Categories
আন্দোলন সম্পর্কে

ঈশ্বর কিভাবে সমগ্র দক্ষিণ এশিয়া জুড়ে সুদূরপ্রসারী হয়েছেন – ভাগ ২

ঈশ্বর কিভাবে সমগ্র দক্ষিণ এশিয়া জুড়ে সুদূরপ্রসারী হয়েছেন – ভাগ ২

– “ওয়াকার” পরিবার দ্বারা লিখিত –

ভাগ ১-এ আমরা প্রবাসী হিসাবে আমাদের অনুকূল অবস্থান, এবং আমাদের মূখ্য অংশীদার সঞ্জয়ের অনুকূল অবস্থান থেকে, দক্ষিণ এশিয়ার একটি সি পি এম-এর উদ্ঘাটন আলোচনা করেছি। এখানে রইল প্রক্রিয়ার মধ্যে আমাদের শেখা আরো বেশ কয়েকটি পাঠঃ

এই সময়ে আমরা বেশকিছু শিক্ষা লাভ করিঃ 

১) হারিয়ে যাওয়া লোকদের সঙ্গে যুক্ত হবার জন্য মথি ১০, লূক ৯ এবং ১০ অধ্যায় থেকে আমরা অত্যন্ত কার্যকারীকার্যকারী কৌশল লাভ করি।

২) অলৌকিক ঘটনাগুলি (সুস্থতা এবং / অথবা মন্দশক্তি থেকে উদ্ধার) ঈশ্বরের রাজ্যে প্রবেশকারী লোকদের মধ্যে একটি ধারাবাহিক উপাদান হিসাবে দেখা যায়।

৩)  ডিসকভারি প্রক্রিয়া যত সহজ হবে, তত এটি কার্যকারীকার্যকারী হবে। সেই কারণে, আমরা এই বিষয়টিকে বিভিন্ন সময়ে আরো সহজতর করার প্রচেষ্টা করেছি।

৪) মানুষের বানানো পুস্তক এবং পদ্ধতির তুলনায় ঈশ্বরের বাক্য থেকে প্রশিক্ষণ দেওয়া অধিক শক্তিশালী, কার্যকারী এবং অনুকৃতিযোগ্য।

৫) অনেক সংখ্যক প্রশিক্ষণ চালু না করে, সেই সমস্ত লোকদের গভীরভাবে সামর্থ্যযুক্ত করা অধিক জরুরী যারা নিজেদের জীবনে সি পি এম নীতিগুলি পালন করে চলেছেন।

৬) প্রত্যেককে প্রেমের সাথে যীশুর আজ্ঞাবহ হতে হবে, এবং প্রত্যেককে এই প্রশিক্ষণ অন্যদের ব্যক্তিদের কাছে হস্তান্তর করতে হবে।

৭) এটি খুঁজে বের করা অত্যন্ত জরুরী যে কেউ ঈশ্বরের বাক্যের তুলনায় স্থানীয় প্রথাকে অধিক অনুসরণ করছে কিনা, কেবলমাত্র সাংস্কৃতিক সংবেদনশীলতা এবং ক্রমবর্ধমান বিশ্বাসের বৃদ্ধি হচ্ছে, কিন্তু তাদের কাজ আক্রমনাত্বক নয়।

৮) কেবলমাত্র ব্যক্তিগতভাবে নয়, সম্পূর্ণ পরিবারের কাছে ঈশ্বরের বাক্য পৌঁছানো প্রয়োজন।

৯) মণ্ডলীর পূর্বের আলোচনা এবং মণ্ডলীতেও ডিসকভারি বাইবেল স্টাডি ব্যবহার করুন।

১০) অধিক ফল উৎপাদন করার জন্য অশিক্ষিত এবং স্বল্প-শিক্ষিত শিষ্যদেরও শক্তিপ্রদান করতে হবে। সেকারণে, যারা পাঠ করতে পারে না তাদের জন্য আমরা রিচার্জযোগ্য এবং, স্বল্প দামের স্পীকার দিয়ে থাকি, যেগুলির মধ্যে বিভিন্ন কাহিনী রেকর্ড করা থাকে। মোট মণ্ডলীর প্রায় অর্ধেক আরম্ভ করা সম্ভব হয়েছে কেবলমাত্র এই স্পীকারগুলির মাধ্যমে। শিষ্যেরা একত্রে বসে, কাহিনী শ্রবণ করে এবং নিজেদের জীবনে সেগুলি ব্যবহার করে।

১১) নেতৃত্বের বৃত্তগুলি নেতাদের টেকসই এবং পুনরুৎপাদনযোগ্য পারস্পরিক পরামর্শ প্রদান করে।

১২) মধ্যস্থতাকারী প্রার্থনা এবং প্রার্থনা শ্রবণ করা অত্যন্ত জরুরী।

এই আন্দোলন বিভিন্ন স্থানে ৪র্থ প্রজন্ম পর্যন্ত বিস্তৃত হয়েছে। কিছু কিছু অঞ্চলে এটি ২৯ প্রজন্ম পর্যন্ত বিস্তৃত হয়েছে। বাস্তবে, এটি কেবলমাত্র একটি আন্দোলন নয়, কিন্তু একাধিক আন্দোলন, ৬টির অধিক ভৌগলিক অঞ্চলে, বিভিন্ন ভাষায় এবং বিভিন্ন ধর্মের লোকদের মধ্যে এটি বিস্তৃত হতে থাকে। কেবলমাত্র হাতেগোনা কয়েকটি মণ্ডলী বিশেষ বিল্ডিং অথবা কোন স্থান ভাড়া নিয়ে উপাসনা করছিল; কিন্তু প্রায় সমস্তই ছিল গৃহ-মণ্ডলী, যারা বাড়ীর উঠানে বা গাছের নীচে জমায়েত করত।

বহিরাগত অনুঘটক হিসাবে আমাদের ভূমিকা (পূর্বসূরী)

  • আমরা সহজ, পুনরুৎপানকারী, বাইবেল ভিত্তিক পরিকাঠামোর পরিবর্তন প্রদান করেছিলাম।
  • আমরা দল হিসাবে শক্তিশালী প্রার্থনার দ্বারা তাদের সমর্থন করতাম, এবং বিদেশ থেকে কৌশলপূর্ণ প্রার্থনার দলকে সচল রাখতাম।
  • আমরা প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করতাম।
  • আমরা স্থানীয় লোকদের প্রশিক্ষণ দিতাম যেন তারা অন্যদের প্রশিক্ষণ দিতে পারে।
  • যদি পরবর্তী পদক্ষেপ স্পষ্ট না থাকে, তাহলে আমরা তাদের পথ প্রদর্শন করতাম।
  • আমরা সেই সমস্ত বিষয়গুলি সম্পর্কে অত্যন্ত সতর্ক থাকতাম যে বিষয়গুলিতে আমরা হয়ত সঞ্জয় এবং জনের সঙ্গে একমত হতামনা। আমরা তাদেরকে নিজেদের থেকেও অধিক গুরুত্বপূর্ণ হিসাবে বিবেচনা করতাম। তারা আমাদের কর্মী ছিলেন না, কিন্তু সহকর্মী ছিলেন এবং আমরা একত্রে ঈশ্বরের আজ্ঞাবহ হবার চেষ্টা করছিলাম। সেই কারণে, আমরা তাদেরকে উৎসাহিত করতাম যেন তারা আমাদের কোন কথাকে মান্য করতেই হবে এমন চিন্তা না করে কিন্তু ব্যক্তিগতভাবে ঈশ্বর কি বলছেন সেই বিষয়ে সচেষ্ট থাকেন।
  • আমরা কোন কোন সময়ে আমাদের ডি এম এম প্রশিক্ষক সঞ্জয় এবং জনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করাতাম যেন তারা তার কাছ থেকে শিখতে পারে যিনি আমাদের থেকেও অনেক বেশী অভিজ্ঞ এবং এই অনেক বেশী কাজ করেছেন। 
  • আমরা আমাদের উপর তাদের নির্ভরতার অনুভূতি হ্রাস করার চেষ্টা করতাম। আমরা সক্রিয়ভাবে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তাদের পথ থেকে বেরিয়ে আসার চেষ্টা করতাম।
  • নেতাদের শৃংখলাপূর্ণ করার জন্য (বাইবেল প্রশিক্ষণ এবং নেতৃত্বের প্রশিক্ষণ) এবং মণ্ডলীকে শিষ্য করার জন্য (ডিসকভারি স্টাডি) প্রয়োজনীয় পাঠ্য সরবরাহ করতাম। 

এই আন্দোলনে স্ত্রীলোকদের ভূমিকা

মহিলা নেতৃবৃন্দ পুরুষ নেতাদের দ্বারা সহজতর শিষ্য নির্মাণের প্রবাহে আত্মপ্রকাশ করেছেন। মহিলা নেতারা আরো মহিলা নেতাদের বৃদ্ধি করেছেন । বাস্তবে, মহিলা নেতারা সমস্ত কাজের একটি বিশেষ স্থান দখল করে রেখেছে, সম্ভবত মূখ্য নেতাদের মধ্যে প্রায় ৩০-৪০% মহিলা নেতা, এমন কি যুবতীরাও আছেন, যারা গৃহ-মণ্ডলী পরিচালনা করেন, নতুন মণ্ডলী স্থাপন করেন এবং অন্যান্য স্ত্রীলোকদের বাপ্তিষ্ম দেন।

মূখ্য আভ্যন্তরীন নেতাদের ভূমিকা

স্থানীয় লোকেরাই “আসল” কাজটি সম্পূর্ণ করে থাকেন। তারা ধূলাপূর্ণ রাস্তায় ঘুরে বেড়ান, বিভিন্ন গৃহেতে প্রবেশ করেন, এবং উদ্ধার ও অলৌকিক কাজের জন্য প্রার্থনা করেন। তারাই সাধারণ কৃষক, এবং কৃষকের পরিবারের সাথে সহজ উপায়ে বাইবেল স্টাডি শুরু করেন, তাদের বাড়িতে থাকেন, তাদের সঙ্গে খাদ্য গ্রহণ করেন, এমন কি তখনও যখন গরম ১০০ ডিগ্রী (ফারেনহাইট) ছাড়িয়ে যায় এবং সেখানেই লেক্ট্রিকও থাকেনা। তারা কাজ করেন এবং তারা যে ফল উৎপন্ন করেন সেই বিষয়ে রোমাঞ্চিত থাকেন! তাদের কাহিনীগুলিই আমাদের এই কাজে এগিয়ে যেতে সাহস যোগায়।

অগ্রগতির মূল কারণগুলি

১. প্রার্থনা শ্রবণ করা। প্রার্থনা করা আমাদের দায়িত্ব। ঈশ্বর বিভিন্ন সময়ে প্রার্থনার মাধ্যমে আমাদের পদ্ধতিগুলিকে পরিবর্তন করেছেন। প্রার্থনার একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হল শ্রবন করা। আমাদের যাত্রাপথে বিভিন্ন পরিবর্তন এসেছে। বিভিন্ন প্রশ্ন এসেছেঃ এরপরে কি হবে? আমরা কি এই ব্যক্তির সঙ্গে একত্রে কাজ করব? আমরা বিভিন্ন ক্ষেত্রে “বন্ধ রাস্তা” দেখেছি; পরের প্রশিক্ষণের জন্য আমরা কোন বাক্যটি ব্যবহার করব? আমাদের অর্থ খরচ করার জন্য এই কারণটি কি যোগ্য? এই ভ্রাতাকে পরিত্যাগ করার সময় কি এসে গেছে যে এই মডেলকে আর ব্যবহার করছে না, অথবা আমাদের উচিত তাকে আরেকটি বার সুযোগ দেওয়া? আমরা কি এই শহরে প্রশিক্ষণ অনবরত রাখব না এখানেই শেষ করব? প্রশ্ন যাই হোক না কেন, আমরা, সমস্ত দল, শিখেছি প্রার্থনায় বসতে এবং ঈশ্বরের উত্তরের জন্য অপেক্ষা করতে।

২. অলৌকিক কাজ। আন্দোলগুলি মূলত অলৌকিক চিহ্নগুলির সাহায্যে প্রাথমিক সম্পর্ক গড়ে তুলতে সাহায্য করেছে। আমরা দেখেছি অনেকে সুস্থতা লাভ করেছে এবং মন্দশক্তি থেকে উদ্ধার পেয়েছে। অলৌকিক কাজ কেবলমাত্র ডি বি এস-এর জন্য একটি উন্মুক্ত দ্বার নয় কিন্তু, এই অলৌকিক ঘটনা একটি গৃহ থেকে অন্য গৃহে খুব দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে এবং এটি অন্যান্য গৃহগুলির দ্বারও আমাদের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়। উদাহরণস্বরূপ, একজন শিষ্য হয়ত একজন মন্দ শক্তিগ্রস্ত মানুষের জন্য প্রার্থনা করার সুযোগ পান। যখন সেই ব্যক্তি উদ্ধার লাভ করে, এই বিষয়টি তার সমস্ত পরিবারের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে, এমন কি তাদের আত্মীয় যারা অন্য গ্রামেতে থাকে তাদের মধ্যেও। সেই দূরের আত্মীয়রাও সেই শিষ্যকে তাদের গৃহেতে প্রার্থনা করার জন্য আমন্ত্রণ জানায়। যখন এই শিষ্য এবং উদ্ধারপ্রাপ্ত ব্যক্তি সেখানে যায় এবং প্রার্থনা করে, অধিকাংশ ক্ষেত্রে সেখানেও অলৌকিক কাজ হয় এবং সেখানেও একটি ডি বি এস শুরু হয়। এইভাবে, খুব সহজেই, স্বল্প শিক্ষিত লোকেরাও – যারা ঈশ্বরের রাজ্যের বিষয়ে জানতই না – তারা ঈশ্বরের রাজ্যের বৃদ্ধিতে কাজ করতে থাকে।

৩. মূল্যায়ণ। আমরা বিভিন্ন প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করে থাকিঃ “আমরা কেমন কাজ করছি? আমাদের বর্তমান কাজ কি আমাদের কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যের দিকে আমাদের নিয়ে যেতে পারবে? আমরা যদি এটি ________ করি, স্থানীয় লোকেরা কি এটি আমাদের সঙ্গে করতে একমত হবে? তারা কি এর পুনরুৎপাদন করতে পারবে?”

৪. আমরা অর্থ ব্যবহারের ক্ষেত্রে অত্যন্ত সতর্ক থাকতাম।

৫. আমরা আমাদের পাঠ্য বিষয়গুলি অভিযোজন করতাম। আমরা খুবই নির্বাচিত পাঠ্যপুস্তক ব্যবহার করতাম। যদি কোন নতুন বিষয় আমাদের দেওয়া হত, যা আমাদের জন্য প্রযোজ্য নয়, আমরা সেটির সঙ্গে সমন্বয় করতাম। এমন কোন সূত্র ছিল না যা প্রত্যেকের জন্য কার্যকারী হবে।

৬. আমরা ঈশ্বরের বাক্যের প্রতি কেন্দ্রভূত ছিলাম। কোন ‘উত্তমশিক্ষা’ই এতটা প্রভাব ফেলতে পারে না যে ভাবে পবিত্র আত্মা কার্যকারীভাবে একজন মানুষের হৃদয়কে প্রভাবিত করতে পারে। সেই কারণে আমাদের প্রত্যেকটি প্রশিক্ষণ দৃঢ়ভাবে ঈশ্বরের বাক্যের উপরে নির্ভরশীল থাকত। প্রশিক্ষণের সময়ে, প্রত্যেকে পর্যবেক্ষণ করত, প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করত, এবং গভীরভাবে অধ্যয়ন করত।

৭. প্রত্যেকে সেই বিষয়গুলি অন্যদের সাথে ভাগ করে নেয় যা তারা ব্যক্তিগতভাবে শিখেছে। এখানে কেউ পুকুর নয়; আমরা প্রত্যেকেই নদী। প্রত্যাশা করা হত যেন প্রত্যেক শিষ্য তাদের প্রত্যেকটি প্রশিক্ষণ নিজেদের শিষ্যদের কাছে পাস করে দেয়।

আমরা যখন থেকে সমস্ত দলকে সমস্ত জাতির শিষ্য নির্মাণ করার কাজে পুরোপুরি মনোনিবেশ করতে প্রচেষ্টা করি, তখন থেকে ঈশ্বর যে মহান কাজ করে চলেছেন তার জন্য আমরা ঈশ্বরের প্রশংসা করি।

“ওয়াকার” পরিবার ২০০১ সালে ভিন্ন সংস্কৃতির মধ্যে কাজ করতে শুরু করে। ২০০৬ সালে, তারা বেয়ন্ড-এর (www.beyond.org) সাথে যোগদান করেন এবং ২০১১ সালে তারা সি পি এম-এর নীতিগুলি ব্যবহার করতে শুরু করেন। “ফোয়েব” ২০১৩ সালে তাদের সঙ্গে যোগদান করেন। ফোয়েব এবং ওয়াকার ২০১৬ সালে অন্য দেশে যাত্রা করেন এবং দূর থেকে সেই আন্দোলনকে চালিয়ে যাবার জন্য সমর্থন করতে থাকেন।

এটি  মিশন ফ্রন্টীয়ার্স –এর ২০১৮ সালের জানুয়ারী – ফেব্রুয়ারী সংস্করণ থেকে সংকলন করা হয়েছে, www.missionfrontiers.org, এবং অবশিষ্ট তথ্য নেওয়া হয়েছে ডিয়ার মম অ্যান্ড ড্যাডঃ অ্যান অ্যাডভেঞ্চার ইন ওবিডিয়েন্স, আর. রেকেডাল স্মিথের রচনা। ২৪:১৪ পুস্তকের পৃষ্ঠা ১২১-১২৯-এ সম্পূর্ণ সম্পাদিত হয় – সমস্ত লোকেদের পক্ষে একটি সাক্ষ্য, ২৪:১৪ থেকে বা অ্যামাজন-এ উপলব্ধ৷

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।